ফাইভ জি’র কারণে ভেঙ্গে পড়বে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লাইট কার্যক্রম

৫ জি ইন্টারনেট কার্যক্রম কে সামনে রেখে তুলকালাম এখন যুক্তরাষ্ট্রে। ১২ই জানুয়ারি দেশটির বিভিন্ন স্থানে ফাইভ জি ইন্টারনেট চালু হলে ভেঙে পড়তে পারে বিমান পরিচালনা ব্যাবস্থা, এমনটাই দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ এয়ারলাইন্সগুলো।

এয়ারলাইন্সগুলোর প্রধান নির্বাহী রা এক চিঠিতে জানিয়েছেন ৫ জি ইন্টারনেট কার্যক্রম চালুর যেরে কারিগড়ি ত্রুটির কারণে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যাত্রী ও কার্গোবাহী বিমানের উড়ান বাতিল করতে হবে।

এয়ারলাইন্সগুলোর আপত্তির মুখে দুই সপ্তাহ স্থগিত রাখার পর বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে ৫ জি কার্যক্রম চালু করতে যাচ্ছে মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান এটি এন্ড টি এবং ভেরিজোন। এর ফলে হোয়াইট বডি এয়ারক্রাফটগুলোর ফ্লাইট বাতিল হওয়ার আশংকা করছে মার্কিন সংস্থাগুলো।

তাদের দাবি বিমানবন্দরে রানওয়ে সংলগ্ন স্থানে সি ব্যান ৫ জি সিগন্যালে বিগ্নিত হবে বিমানগুলোর নেভিগেশন সিস্টেম। খারাপ আবহাওয়া কিংবা তুষার ঝড়ের সময় এ সমস্যা আরো প্রকোট হতে পারে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন জানিয়েছিলো রানওয়ের আশেপাশে ৫ জি সিগনালের ভূল রিডিং দেখাতে পারে বিমানের উচ্চতা মাপার যন্ত্র অল্টিমিটার।

এয়ারলাইন্সগুলো প্রধান নির্বাহীদের লেখা এ চিঠির কপি পৌঁছেছে হোয়াইট হাউজেও। চিঠিতে সতর্ক করে দিয়ে আরো বলা হয় বিমান পরিচালনা বিগ্নিত হলে এর গুরুতর প্রভাব পড়বে যুক্তরাষ্ট্রের সাপ্লাই চেইন সিস্টেম সহ সামগ্রিক বাণিজ্যিক কার্যক্রমেও। এমনকি বিগ্নিত হবে কোভিড ভ্যাক্সিন সরবরাহ।

এদিকে এয়ারলাইন্সগুলোর উদ্ভেগ কে বাড়াবাড়ি মনে করছে ভ্যারিজন ও এটিএনটি। তারা বলছে সি ব্যান ৫ জি বিশ্বের আরো ৪০ টি দেশে সফলভাবে কাজ করছে। সে দেশগুলোতে এ ধরণের কোন সমস্যা হয় নি।

24 Update

My name is Sumon. I am a small content Writer. I like blogging a lot. I always try to write about new things. And we help everyone there with a variety of information. I hope you like my writing a lot.
Back to top button
Close