Samsung Galaxy M13 Pro 5G এর প্রাইস এবং যাবতীয় বিস্তারিত

২০২২ সালে শুরুতেই স্যামসাং সবাইকে চমক দিতে বাজারে ছাড়তে চলেছে নতুন এক মডেলের স্মার্টফোন। ফোনটির নাম Samsung Galaxy M13 Pro 5G. ৫জি সাপোর্টেড এই ফোনটি ঘিরে রয়েছে অনেক আকর্ষণ। ইয়াং জেনারেশনের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ দেখা যাচ্ছে আপকামিং এই ফোনটিতে। নিম্নে বিস্তারিত উল্লখ করা হলো ফোনটি সম্পর্কে।

Samsung Galaxy M13 Pro 5G ফোনটিতে রয়েছে চমকপ্রদ সব ফিচারসমূহ। এটি পরিচালনা করার জন্য দেয়া হয়েছে এন্ড্রয়েড ১২ অপারেটিং সিস্টেম। যা আপনার ইউজার এক্সপিরিয়েন্স বাড়িয়ে দিবে কয়েক গুণ। ফ্ল্যাগশীপ এই ফোনটিতে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক সিকিউরিটি সিস্টেম।

স্যামসাং এর এই ৫ জি স্মার্টফোনটির আনুমানিক মূল্য ধরা হচ্ছে ৩২,২৬৬ টাকা। মধ্যম প্রাইস রেঞ্জে ৫ জি মোবাইল এখন খুভ একটা দেখা যায় না। তার সাথে তো রয়েছেই নানা সব লেটেস্ট ফিচারসমূহ। তাই সব মিলিয়ে যের কেউ এটি পছন্দ করতে সময় লাগবে না।

ফোনটিতে দেয়া হয়েছে ৬.৯ ইঞ্চি সুপার এমোল্ড ডিসপ্লে এবং আপনি চাইলেই প্রটেকশন হিসেবে ব্যাবহার করতে পারেন কর্নিং গরিলা গ্লাস। র‍্যাম হিসেবে পাচ্ছেন ৮/১২ জিবি ভ্যারিয়েন্ট এবং ইন্টারনাল স্টোরেজে থাকছে ১২৮/২৫৬/৫১২ জিবি ভ্যারিয়েন্ট। এছাড়া Qualcomm Snapdragon 898 5G প্রসেসর এর ইউজার এক্সপিরিয়েন্সকে বাড়িয়ে দেবে কয়েকগুণ।

স্যামসাং এর আপকামিং এই ফোনটিতে থাকছে ৬৪+২৪+১৬+৫ মেগা পিক্সেল মেইন ক্যামেরা এবং ৩২ মেগা পিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। উভয় সাইটেই ধারণ করা যাবে হাই রেজুলশন ফটো এবং ভিডিও। এছাড়া শক্তিশালী ফ্ল্যাশ লাইট তো রয়েছেই। আশা করছি যে ভালো মানের ভিডিও স্ট্রিমিং করা যাবে ফোনটিতে।

পাওয়ার সেকশনে রয়েছে ৬৮৫০ মিলি এম্পিয়ার ব্যাটারি ব্যাকআপ যা আপনাকে দিবে লং টাইম পার্ফর্মেন্স। এর সাথে থাকছে ৪৫ ওয়াট এর একটি চার্জার এবং ফোনটি ওয়্যারলেস চার্জিং ও সাপোর্ট করে থাকবে। তাই এটি চার্জ করতে বেশি সময় অপেক্ষা করতে হবে না।

ধারণা করা হছে স্যামসাং এর এই ফোনটি বাজারে আসবে ২০২২ এর আগস্টে। তাই আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে ফোনটি হাতে পেতে হলে। ধারণা করা যাচ্ছে যে অচিরেই স্যামসাং এর পক্ষ থেকে অফিশিয়াল তথ্য প্রকাশ করা হবে।

24 Update

My name is Sumon. I am a small content Writer. I like blogging a lot. I always try to write about new things. And we help everyone there with a variety of information. I hope you like my writing a lot.
Back to top button
Close