বাংলা নববর্ষ / পহেলা বৈশাখ অনুচ্ছেদ রচনা

বাংলা নববর্ষ / পহেলা বৈশাখ অনুচ্ছেদ রচনা

অথবা, বৈশাখী মেলা /আমার দেখা একটি মেলা।

ভূমিকা :
নববর্ষ বাঙালি সংস্কৃতির এক গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। বিগত বছরের শেষ সূর্যাস্তের পর একটি রাতের অপেক্ষা মাত্র। তারপর পূর্বাকাশে নতুন বছরের প্রথম সূর্যোদয় নববর্ষের সূচনা । ফেলে আসা দুঃখ-বেদনা, ব্যর্থতা, গ্লানি সব ধুয়ে মুছে সুদিনের আকাঙ্ক্ষায় সামনে এগিয়ে চলা । ঘরে ঘরে আনন্দের জোয়ার বয়ে যায়। গ্রামে, গঞ্জে, শহরে, বন্দরে অর্থাৎ সারা বাংলার বিভিন্ন স্থানে জমে ওঠে বৈশাখী মেলা । শিশু-কিশাের, ছেলে-বুড়াে সবাই দল বেঁধে মেলায় যায় ।

বর্ণনা :
পহেলা বৈশাখ আমাদের জাতীয় উৎসব ও ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে। তবে এই দিনে ছােটো-বড়াে সকলের কাছে আকর্ষণীয় হলাে বৈশাখী মেলা। নানা আনন্দ-অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনটি পালিত হয়। নববর্ষকে স্বাগত জানানাের জন্যই এই মেলার আয়ােজন। এই মেলা সাধারণত বৈশাখের প্রথম দিনটিতে প্রায় সারাদিন চলে। অর্থাৎ সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এই মেলা চলে। তবে কোনাে কোনাে স্থানে এই মেলা তিনদিন থেকে সাতদিন পর্যন্ত চলে । মেলায় নানান ধরনের জিনিস বিশেষ করে কুটিরশিল্পজাত জিনিসপত্রের প্রচুর আমদানি হয়। বিভিন্ন ধরনের দেশি খাবার-দাবার

যেমন- মুড়ি, মুড়কি, চিনি বা গুড় দিয়ে তৈরি সাজের ঘােড়া, ফুল ইত্যাদি তৈরি হয়। বাঁশের তৈরি বাঁশি, কুলা, নকশি পাখা, মাটির তৈরি হাঁড়ি-পাতিল, খেলনা ইত্যাদি সামগ্রী মেলায় পাওয়া যায়। শহরের মেলায় এসবের পাশাপাশি কলকারখানায় তৈরি নানা বস্তু সামগ্রী কেনা-বেচা হয়। মেলায় দেশীয় খেলাধুলা এবং সার্কাসেরও আয়ােজন থাকে। হাতে ঠেলা চরকি বাজি বা নাগরদোলাও দেখা যায়। এগুলাে ছােটো-বড়াে সকলেই আনন্দের সঙ্গে উপভােগ করে। এই মেলায় কুটিরশিল্পের পণ্যসামগ্রী এবং দেশীয় কলকারখানায় তৈরি শিল্পসামগ্রী বেশি প্রাধান্য পায়। দেশীয় খাবারের প্রচুর দোকানপাট থাকে। মেলায় প্রয়ােজনীয় জিনিসপত্র ছাড়াও শিশুদের আনন্দের জন্য প্রচুর আয়ােজন থাকে। মাটির খেলনা, প্লাস্টিকের খেলনা, কাঠের তৈরি নানা ধরনের খেলনা শিশুদের মন কেড়ে নেওয়া জিনিস দোকানপাটে সাজিয়ে রাখা হয়। পহেলা বৈশাখে সকালবেলা পান্তা ভাত ও ইলিশ মাছ ভাজা খাওয়ার প্রচলন রয়েছে ।

বৈশাখী মেলার তাৎপর্য :
নববর্ষকে কেন্দ্র করে যে বৈশাখী মেলা বসে তাতে বহু লােকের সমাগম হয়। এ যেন বিচিত্র মানুষের মিলনক্ষেত্র। এই মেলাকে কেন্দ্র করে মানুষের হিংসা-বিদ্বেষ ও দ্বিধা-দ্বন্দ্ব দূর হয়ে যায়; গ্রামে এই ধরনের মেলা মানুষের জীবনে নিয়ে আসে অনাবিল আনন্দ। এখন শহরেও বৈশাখী মেলার আয়ােজন করা হয়। ঢাকা শহরের পুরান ঢাকায় এবং শাহবাগ থেকে শুরু করে বাংলা একাডেমি পর্যন্ত বিস্তৃত এলাকা জুড়ে রাস্তার দুপাশে প্রতি বছর বৈশাখী মেলার আয়ােজন করা হয়। নববর্ষের এই মেলা তাই অগণিত মানুষের সমাগমে আনন্দমুখর হয়ে ওঠে।

উপসংহার :
বাংলা নববর্ষ আমাদের আনন্দ উৎসবে পালিত হয়। এর মধ্য দিয়ে আমাদের সম্প্রদায়নিরপেক্ষ চিন্তা-চেতনা বিকশিত হয়।

দেখুনঃ

পহেলা বৈশাখ এর শুভেচ্ছা।নববর্ষের আগের সন্ধা।অগ্রীম নববর্ষের শুভেচ্ছা

নববর্ষের শুভেচ্ছা বাণী, কবিতা, উক্তি, স্ট্যাটাস, ছন্দ, ছবি এবং ক্যাপশন

স্বাধীনতা দিবস অনুচ্ছেদ রচনা

বঙ্গবন্ধুর জীবনী অনুচ্ছেদ রচনা | ছোটদের বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রচনা

ভাষা আন্দোলনের শহীদদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি

একুশে ফেব্রুয়ারি কবিতা, স্ট্যাটাস, ছন্দ, ছবি এবং ক্যাপশন

একুশে ফেব্রুয়ারি অনুচ্ছেদ রচনা- আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস অনুচ্ছেদ রচনা

24 Update

My name is Sumon. I am a small content Writer. I like blogging a lot. I always try to write about new things. And we help everyone there with a variety of information. I hope you like my writing a lot.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close